https://sylhet24.net/home/news_description/7446

জয়কলস ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র এখন সাধারণ মানুষের ভরসা

প্রসারিত করো ছোট করা পরবর্তীতে পড়ুন Print

মেহেদী হাসান

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার সদর ইউনিয়ন জয়কলস স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কেন্দ্র। বলা চলে এটি সুনামগঞ্জে জেলার অন্যতম স্বাস্থ্য কেন্দ্র। ইউনিয়ন স্বাস্থ্য কেন্দ্র হলেও এর সেবার পরিসর পুরো দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা জুরে। ইউনিয়নের মানুষের স্বাস্থ্য সেবার ভরসা এটি। সেই সূচনালগ্ন থেকে আজ অব্দি এর সেবার মান বাড়ছে দ্রুত গতিতে। স্বাস্থ্য কেন্দ্রটির পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা আর সেবার মান মুগ্ধ করেছে ইউনিয়নের মানুষকে। পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকার বাসভবন কেন্দ্রে হওয়ায় ২৪ ঘন্টা সেবা পাচ্ছেন সাধারণ মানুষ।


এই কেন্দ্রের সফল পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা সুমিত্রা রানী চৌধুরী। যিনি দায়িত্বের গন্ডি পেরিয়ে গিয়েও নিরলসভাবে স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে যাচ্ছেন মানুষকে। সরকারি বাসভবনে থাকার বদৌলতে ২৪ ঘন্টা সেবা পাচ্ছেন একানকার মানুষ৷ একজন দক্ষ পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা হিসেবে সবার স্বজন হয়ে উঠেছেন সুমিত্রা রানী চৌধুরী।


বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের প্রাক্কালে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলার জনগনের পাশে মানবিক চিকিৎসক ও স্বাস্থ্যকর্মীদের মধ্যে একজন এই স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা।




তার কেন্দ্রে সেবার মধ্যে রয়েছে মা ও শিশু স্বাস্থ্য সেবা, গর্ভবতী,প্রসুতি সেবা, নরমাল ডেলিভারি সেবা, কিশোর কিশোরী প্রজনন স্বাস্থ্যসেবা,পরিবার পরিকল্পনা সেবা সহ অন্যান্য সকল সেবা। ফলে প্রতিদিনই ২ শতাধিক রুগীদের এসব সেবা দিচ্ছেন নিরলসভাবে। এতে রয়েছে তার জীবনের ঝুকি। এত ঝুকি নিয়ে সেবা দিয়েও আড়ালেই রয়ে যান সুমিত্রা রানীরা।


সেবা নিতে আশা এক নারী বলেন, এখানে এলে আমরা আন্তরিকতার সহিত সেবা পাই। নির্ধারিত সময়ের বাইরেও আমরা উনার বাসায় গেলেও স্বাস্থ্য সেবা পাচ্ছি।


কথা হলে জয়কলস ইউনিয়ন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা সুমিত্রা রানী চৌধুরী বলেন, স্বাস্থ্য সেবীদের প্রধান এবং একমাত্র কাজ হচ্ছে রোগীদের সেবা দেয়া। আমি এই মহামারীতেও জীবনের ঝুকি নিয়ে সরকারি নির্দেশনায় প্রতিনিয়ত স্বাস্থ্য সেবা দিয়ে আসছি। আমি সবার আশির্বাদ চাই।


এদিকে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা বিভাগ স্বাস্থ্য কেন্দ্রের সীমানা প্রাচীর নির্মাণসহ বিভিন্ন সৌন্দর্য বর্ধন কাজ চলমান রেখেছে। জেলার মধ্যে শ্রেষ্ঠ স্বাস্থ্য কেন্দ্র গড়াই তাদের লক্ষ্য। আর সে লক্ষ্যেই কাজ করছেন পরিবার কল্যাণ পরিদর্শিকা সুমিত্রা রানী চৌধুরী


Editor: Mohammad Shakir Hossain

122 Albert Road, London,UK