রবিবার, ৮ ডিসেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

কসবায় দুই ট্রেনের সংঘর্ষে নিহত ১৬



105958_bangladesh_pratidin_75114882_2799858740065691_8488473681918427136_n

অনলাইন ডেস্ক : 

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার কসবা উপজেলার মন্দবাগ রেলস্টেশনে তূর্ণা নিশীথা ও উদয়ন এক্সপ্রেস ট্রেনের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়েছে। এ দুর্ঘটনায় এখন পর্যন্ত ১৬ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। আহতের সংখ্যা অন্তত ১০০ জন। সোমবার (১১ নভেম্বর) দিবাগত রাত ৩টার দিকে এই দুর্ঘটনা ঘটে। তূর্ণা নিশীথা চট্টগ্রাম থেকে ঢাকার দিকে আর উদয়ন এক্সপ্রেস সিলেট থেকে চট্টগ্রাম যাচ্ছিল। কসবা উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মাসুদ উল আলম দুর্ঘটনার তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে,  ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ট্রেন দুর্ঘটনায় রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শোক প্রকাশ করেছেন।

নিহতদের প্রত্যেক পরিবারকে ২৫ হাজার টাকা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে জেলা প্রশাসন। জেলা প্রশাসক হায়াত-উদ-দৌলা খান মঙ্গলবার (১২ নভেম্বর) সকাল পৌনে আটটার দিকে বাংলা ট্রিবিউনকে জানান, সিগন্যাল না মানায় এই দুর্ঘটনা ঘটেছে। তিনি বলেন, ‘নিহতের সংখ্যা বেড়ে এখন ১৫ জনে দাঁড়িয়েছে।’

এর আগে সোমবার রাতে ঘটনাস্থল থেকে ইউএনও মাসুদ উল আলম বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘ঘটনাস্থলে ৯টি লাশ রয়েছে, এরমধ্যে পাঁচজন পুরুষ ও চার জন নারী। কসবা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে আহত ২৮ জন ভর্তি হয়েছেন, তাদের মধ্যে দু’জন মারা গেছেন। এছাড়া, ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর হাসপাতালে দু’জন মারা গেছেন। কুমিল্লায় ৯ জন ভর্তি আছেন, এদের একজন মারা গেছেন, তিন জনের অবস্থা আশঙ্কাজনক। খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে এসেছি। উদ্ধার কাজ চলছে। আমরা কন্ট্রোল রুমও খুলেছি। স্থানীয়রা আমাদের জানিয়েছেন, প্রায় ১০০ লোক আহত হতে পারেন।’

এদিকে, আমাদের কুমিল্লা প্রতিনিধি মাসুদ আলম জানিয়েছেন, ব্রাহ্মণবাড়িয়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভিল ডিফেন্সের হেল্প ডেস্কের দায়িত্বরত ফায়ারম্যান বরকতুল্লা বলেছেন, এ ঘটনায় নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।

এদিকে, দুর্ঘটনার পর ঢাকা-চট্টগ্রাম এবং চট্টগ্রাম-সিলেটের সঙ্গে রেল যোগাযোগ বন্ধ রয়েছে।

কসবার সীমান্তবর্তী উপজেলা কুমিল্লার ব্রাহ্মণপাড়ার এসিল্যান্ড জাফর সাদিক চৌধুরী বাংলা ট্রিবিউনকে বলেন, ‘রাত সাড়ে তিনটায় কুমিল্লার ডিসির ফোন পেয়ে তিনি মেডিক্যাল টিমসহ ঘটনাস্থলে অ্যাম্বুলেন্স পাঠিয়েছেন।’