শনিবার, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯ খ্রীষ্টাব্দ | ৬ আশ্বিন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

নিয়মনীতি না না মেনেই ১৪৩টি গাছ কেটে ফেললো সিলেট বেতার কর্তৃপক্ষ



বেতাড়

সিলেট২৪ ডেস্ক:

যে প্রতিষ্ঠান থেকে মানুষকে গাছ লাগাতে উদ্বদ্ধু করা হয় সেই প্রতিষ্ঠানের সবগুলো গাছ নির্বিচারে কেটে ফেলা হয়েছে। নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে এই কাজ করেছে সিলেট বেতার কর্তৃপক্ষ। রাষ্ট্রীয় প্রচার প্রতিষ্ঠানের এরকম বৃক্ষনিধনের বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেমেছেন পরিবেশকর্মীরা। তাদের অভিযোগ, উন্নয়ন কর্মকান্ডের জন্য ৬৫টি গাছ কাটার কথা থাকলেও জালিয়াতি করে সেখানে ১৪৩টি গাছ কাটা হয়েছে।

১৯৭৮ সালে ২২ নভেম্বর সিলেটের মিরের ময়দানে যাত্রা শুরু করে বাংলাদেশ বেতারের সিলেট কেন্দ্র। দুই দশমিক এক একর জায়গা জুড়ে এই কেন্দ্রে ছিল সেগুন, মেহগনি, কড়ই, কাঁঠালসহ  বিভিন্ন প্রজাতির গাঠপালা। এরই মধ্যে অনেক গাছ শতবর্ষী।

সম্প্রতি উন্নয়ন কাজের অজুহাতে বনবিভাগের অনুমতি না নিয়েই ১৪৩টি গাছ কেটে ফেলেছে বেতার সংশ্লিষ্ঠরা। যদিও ৬৫টি গাছ কাটার অনুমতি তাদের।

বাংলাদেশ বেতার একটি সরকারি প্রচার মাধ্যম। এখান থেকেই বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে গাছ  রা কাটতে জনগণকে সচেতন করা হয়। অথচ সেই প্রতিষ্ঠানের ভেতরে এরকম নির্বিচারে বৃক্ষনিধনে ক্ষুব্ধ স্থানীয় পরিবেশকর্মীরা।

কেন অতিরিক্ত ৭৮ টি গাছ কাটা হলো এমন  প্রশ্নের জবাবে আঞ্চলিক প্রকৌশলী কিংবা প্রজেক্ট ডিরেক্টরের দাবি, উন্নয়নের স্বার্থেই গাছ কাটা হয়েছে। তবে সংশ্লিষ্ঠদের অনুমতি  না নেয়াটা ভুল বলে স্বীকার করেন।

বন বিভাগ জানিয়েছেন, বেতার কর্তৃপক্ষের আবেদনের প্রেক্ষিতে কিছু গাছের কেবল মূল্য নির্ধারণ করে দেয়া হয়েছিল কিন্তু কাটার অনুমতি দেয়া হয়নি।

১৪৩ টি গাছ কেটে সিলেট বেতার কেন্দ্রকে বৃক্ষশূন্য করার ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের এবং দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন সিলেটের পরিবেশ কর্মীরা।