সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১২ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

‘সংবাদে নাম না দেওয়ায়’ সাংবাদিকের ওপর হামলা



munshiganj journal attack

ডেস্ক রিপোর্ট :

সংবাদে নাম না দেওয়ার অভিযোগে কালেরকণ্ঠের মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি ও বিক্রমপুর প্রেসক্লাবের সভাপতি সাংবাদিক মাসুদ খানের ওপর হামলা চালিয়েছে আওয়ামী লীগের এক নেতার সমর্থকরা। আজ বুধবার দুপুরে বিক্রমপুর প্রেসক্লাব ভবনের নিচ তলায় এই ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় তিনজনকে আটক করা হয়েছে।আটক হওয়া তিনজন হলেন লৌহজং উপজেলার উত্তর হলদিয়া গ্রামের আশিক (২০), মো. সেলিম (২৬) ও দক্ষিণ হলদিয়া গ্রামের মো. দেলোয়ার (৫৫)।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, গত সোমবার লৌহজংয়ের হলদিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এ নিয়ে একটি সংবাদ গত মঙ্গলবার কালের কণ্ঠে প্রকাশিত হয়। কিন্তু সেখানে লৌহজং থানা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক বি এম শোয়েবের নাম না থাকায় তাঁর সমর্থকরা ক্ষুব্ধ হন। এ নিয়ে গতকাল মঙ্গলবার হলদিয়া বাজারে ব্যাপক হট্টগোল করেন সমর্থকরা।আজ দুপুর ১টার দিকে সাংবাদিক মাসুদ খান হলদিয়া বাজারে অবস্থিত বিক্রমপুর প্রেসক্লাবের দ্বিতল ভবন থেকে নেমে নিচতলায় আসেন। এরপর শোয়েবের চাচাতো ভাই মিন্টু ব্যাপারী, অপু ঘোষ, শীবু শীলসহ ১০ থেকে ১২ জন মাসুদকে মারধর করেন। এ সময় মাসুদ দৌড়ে হলদিয়া বাজারের একটি মিষ্টির দোকানে আশ্রয় নেন। এরপর সেখানে গিয়েও হামলাকারীরা লাঠিসোটা ও হাতুরি দিয়ে তাঁকে ব্যাপক মারধর করেন।

এ সময় স্থানীয় ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ও বাজারের দোকানদার মানিক লক্ষণ ও মনির হোসেনসহ কয়েকজন মাসুদকে উদ্ধার করে লৌহজং উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করেন।

এ ব্যাপারে আহত মাসুদ খান বলেন, ‘আমার ওপর যে হামলা হয়েছে তা পরিকল্পিত। কারো নাম পত্রিকায় না গেলে সেজন্য সাংবাদিকের ওপর হামলা করা হবে? এটা কি সভ্য সমাজ মেনে নেবে ? তারা দাবি করছে, নাম না যাওয়ায় সংবাদটি নাকি বস্তুনিষ্ঠ হয়নি। এজন্য তারা একটি ব্যানারও প্রেসক্লাবের দেয়ালে সাটিয়ে দেয়। তাহলে কি সাংবাদিক সমাজ তাদের ভয়ে এখন থেকে যার-তার নাম পত্রিকায় ছেপে দেবে?’

মাসুদ খান অভিযোগ করে বলেন, হামলার সময় গত বৃহস্পতিবার প্রেসক্লাবে আয়োজিত ইফতার মাহফিলের জন্য থাকা খরচের ৫০ হাজার টাকা, গলায় থাকা সোনার চেইন ও হাতের ব্রেসলেট ছিনিয়ে নেওয়া হয়। তিনি এই হামলার বিচার দাবি করেছেন।এ ব্যাপারে মাসুদ খান বাদী হয়ে লৌহজং থানায় একটি হত্যাচেষ্টা মামলা দায়ের করেছেন।

লৌহজং থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রাজিব খান বলেন, ‘হামলার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। পুলিশ দ্রুত ব্যবস্থা নিয়েছে। এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকায় পুলিশ তিনজনকে গ্রেপ্তার করেছে। বাকিদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা চলছে।’