বৃহস্পতিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

না বলা কথা



17190728_10154484452564779_7327222619655529418_n

মোহাম্মদ শাকির হোসাইন

ভোরে ঘুম থেকে উঠেই প্রথম কাজটি ছিলো মোবাইল চেক করা। তো দেখি আওয়ামীলীগের একজন প্রভাবশালী নেতার ২৫ টি মিসকল। সারারাতই উনি চেষ্টা করেছেন কিন্তু আমি রিং শুনিনি। ভাবলাম উনি সারারাত যখন সজাগ ছিলেন তখন আরো পরে কলব্যাক করব।

এরই মধ্যে ছাতকে কোনো ঘটনা ঘটেছে কিনা জানতে স্থানীয় সাংবাদিকদের কল দেই। ওসিকেও কল দিলাম। নাহ সবাই বলছে কোনো কিছু ঘটে নাই।

তাহলে তিনি কেন কল দিলেন? এরমধ্যে অফিসে যাওয়ার প্রস্তুতি শুরু করেছি। দশটার আগে তখন অফিসে প্রবেশ বাধ্যতামুলক। *

টয়লেটের কাজ শেষ করতে পারছি না কল বাজছেই।
ওই নেতা কল দিচ্ছেন। যাইহোক বের হয়ে রিসিভ করলাম। তিনি যা বললেন তা আমি বিশ্বাস করলাম না। জ্বি ভাই জ্বি ভাই বলে শুনে রেখে দিলাম।

কিছুক্ষন পর আবার কল দিলেন। বললেন আমি টিভির সামনে বসা নিউজটা এখনো দেয়নাই। আমি বললাম ভাই দেখি কি করা যায় তবে এইটা আমার রাডারের বাইরে।

মনে মনে উনার কথা ঠাহা মিথ্যা ধরে নিলাম। চরম বিরক্ত হচ্ছি তার উপর।

যার সম্পর্কে বলছেন তিনি অত্যন্ত প্রভাবশালী। মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, সংবিধান রচনা কমিটির সদস্য, সর্বোপরি ইন্ডিয়ার বিশেষ আস্থাভাজন। শেখ হাসিনাও যেখানে অসহায়।

নগরমহলে গিয়ে নাস্তা করছি এমন সময় আবার কল আসলো। এবার তার কণ্ঠে আকুতির সুর। ‘শাকির এই ঘটনা টাকা খাইয়া ঢাকার সাংবাদিকরা ( কয়েকজন) ধামাচাপা দিলাইছে। তুমি যদি কিচ্ছু না করো তে হেতো বাচিজিবরে ভাই।

আমি কল দিলাম ঢাকায় আশিকুর রহমান চৌধুরীকে।
তিনি বললেন, ভাই আমার এসাইনমেন্ট আছে চলে যাচ্ছি, তবে জহির ভাইকে ঘটনা বলে যাচ্ছি। জহিরুল ইসলাম তখন এনটিভিট চীফ রিপোর্টার।

এবার জহির ভাইর কল এলো। বললাম- ভাই গতরাতে রেলমন্ত্রী সুরঞ্জিতের এপিএস ফারুক ঘুষের তিনকোটি টাকাসহ ধরা পড়েছে পিলখানায়। শুনে ফোন রেখে দিলেন। কিছুক্ষন পর আবার কল দিয়ে বললেন, এটাকি সিলেট পিলখানা? আমি বললাম জ্বি না ভাই, ঢাকা পিলখানা। উনি বললেন ওরাতো এরকম কিছু ঘটেনাই বলে জানিয়েছে। তোমাকে কে বলেছে? বললাম এরকম এরকম।

এবার ওইনেতাকে বললাম ভাই পিলখানাতো না করছে।
বললেন,’ সেনবাবু সহ তারা এখন ক্যান্টনমেন্ট থানায় আছে নেগোশিয়েট চলছে। তুমি তাড়াতাড়ি লোক পাঠাও।

বললাম আপনারে এসব কে বলতেছে?
বললেন জগৎ।

জগৎতো আপনারে কওয়ার কথা না।

তিনি বললেন তারে এপিএস না দেওয়ায় হে বেজার। হেও আছে থানায়’।

জহির ভাইকে জানালাম। একটু পরে ওই নেতা বললেন শাকির ব্রেকিং দের এনটিভি’ত। এখন দেখমু বাবু মন্ত্রী থাকে কিলা।

পরের ঘটনা সবার জানা।

সেই তিনকোটি টাকা পিলখানা থেকে ৭০ লাখ হয়ে বের হলো। যে জগৎজোতি এই সংবাদটি জগদীশের মাধ্যমে ছাতকে পৌছে দিয়েছিল সেই জগৎ কিছুদিন পর চলে যেতে বাধ্য হলো পরপারে। রাতে তোলা ফুটেজ পরদিন সেই টিভিওয়ালারা দেখাইতে বাধ্য হলো। সেই সাথে বাড়তে থাকলো রাজনৈতিক উত্তাপ। ইন্ডিয়া ব্যাকআপে দপ্তর খুয়ালেন তিনি। রোজির ধান্ধা হলো বন্ধ। এরপর অনেকদিন রাতে ঘুমাতে পারিনি। যদি জানাজানি হয়? এখন বাবু নেই তবে বাবুর পথের বহু পথিক তো আছেই। যারা এখনো বাবুকে বুজুর্গ মনে করে। যে দেশে ঘুষখোরদের বিচরণ সর্বত্র সেই দেশে ঘুষ নেয়ার বিচার কি স্বাভাবিক ভাবে সম্ভব? এজন্যেই লিয়াকতদের ভয় পাই। শোয়েবরা ক্ষমতার কেন্দ্রবিন্দু তে থাকে। এজন্যেই সারাদেশে নাহিদ কিংবা শামীম ওসমানদের বিরুদ্ধে সমালোচনা হলেও তাদের একগাছা লোমও নড়েনা।

পুনশ্চ: প্রতিনিধি সম্মেলনে বিরতির ফাঁকে এনটিভির সিএনই মুকুল ভাই কয়েকজন সাংবাদিককে আমাকে দেখিয়ে বলছিলেন ওরমতো কাজ কর। সিলেটে বসে ও ঢাকার সব খবর রাখে। আমি বললাম ভাই অন্তত একটা সার্টিফিকেট দেন তিনি বললেন চেনা বামনের পৈতা লাগেনা।