সোমবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৪ মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

জামালগঞ্জে বিএনপির পরাজয় নেতাদের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ



bnp৬ষ্ঠ ধাপের সর্বশেষ অনুষ্ঠিত সুনামগঞ্জ জেলার জামালগঞ্জ উপজেলার ৬টি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে বিএনপির দলীয় প্রার্থীদের ভরাডুবির ঘটনা ঘটেছে। তিনটিতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও একটিতে বিএনপির বিদ্রোহী প্রার্থী বিজয়ী হয়েছেন।
উপজেলার চারটি ইউনিয়নেই বিএনপির এই চরম ভরাডুবিতে ক্ষুদ্ধ হয়েছেন দলের সাধারণ নেতাকর্মীরা। দলের এই ভরাডুবির জন্য দায়িত্বশীল নেতৃবৃন্দও একে অপরের বিরুদ্ধে পাল্টাপাল্টি অভিযোগ করছেন।

অভিযোগ উঠেছে প্রার্থী বাছাইয়ে সঠিক সিদ্ধান্ত নিতে না পারার কারণে বিএনপির এই শোচনীয় পরাজয় হয়েছে। বিএনপি দলীয় চেয়ারম্যান প্রার্থীদের পরাজয়ের জন্য অনেকেই উপজেলা বিএনপির সভাপতি নূরুল হক আফিন্দীকে দায়ী করছেন। কেউ কেউ প্রকাশ্যে বলছেন আবার কেউ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে এসব নিয়ে সরব হয়েছেন।
সোমবার সকাল ১০.৪৫ মিনিটে জামালগঞ্জ উপজেলা বিএনপির সাবেক সহ সভাপতি মো. আব্দুস সাত্তার তার ফেসবুক আইডিতে লিখেছেন,‘জামালগঞ্জ উপজেলায় বিএনপির বিশাল পরাজয়ের গ্লানি নিয়ে সভাপতি নূরল হক আফিন্দির পদত্যাগ করা উচিত নয় কি ? ৪ জুন ২০১৬ ইং ৬ষ্ঠ ধাপে জামালগঞ্জ উপজেলা ৬ টি ইউনিয়ন এর মধ্যে ৪ টি ইউনিয়ন নির্বাচন সম্পন্ন হয়েছে। সেখানে বিনপির সবক’টি প্রাথী সূচনীয়ভাবে   পরাজয় বরণ করে। এজন্য উপজেলা বিএনপির সভাপতি নূরল হক আফিন্দিকে এককভাবে দায়ী বলে তৃণমূলের নেতৃবৃন্দরা মনে করেন। প্রাথী নির্বাচনে প্রধান অতিথি ও বিশেষ অতিথি হওয়ার জন্য প্রত্যেক ইউনিয়নে তৃণমূলের নেতাকর্মীবৃন্দদের নিয়ে মত বিনিময় সভা করলেও তৃণমূলের মতকে প্রধান্য না দিয়ে ব্যক্তি ও পারিবারিক সুবিধার কথা চিন্তা করে প্রাথী নির্বাচন করায় এই বিশাল পরাজয়ের কারণ। এই জন্য জামালগঞ্জ উপজেলার সর্বস্তরের তৃণমূলের নেতাকর্মীরা পদত্যাগ দাবি করেন।’
এ ব্যাপারে উপজেলা বিএনপির সভাপতি নূরুল হক আফিন্দী  বলেন,‘যারা আমার বিরুদ্ধে এখন নানা অবান্তর কথা তুলছেন তারা বিএনপির কেউ নন, এরা আগাছা। এরাই বিএনপির বিপক্ষে বিদ্রোহী প্রার্থী দাঁড় করিয়েছেন। আঁতাত করে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগসহ স্বতন্ত্র প্রার্থীর পক্ষে কাজ করেছেন। মূলত এদের কারণেই বিএনপির প্রার্থীদের পরাজয় হয়েছে। এদের কারণেই সাচনাবাজার ও ভীমখালী ইউনিয়নে প্রার্থী বাছাইয়ে কেন্দ্রীয় কমিটি সমস্যায় পড়েছিল।’