শুক্রবার, ২৪ জানুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১১ মাঘ ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

ফেঞ্চুগঞ্জে শিশু খুনের অভিযোগে পাঁচ জন আটক



child-abuse2-400x300ফেঞ্চুগঞ্জে আপন ভাবির হাতে ৭ বছরের শিশু ননদকে খুন করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নিহতের নাম তাহমিনা বেগম (৭)। সে  উপজেলার পশ্চিম আশিঘর গ্রামের মতই মিয়ার মেয়ে। এ ঘটনায় তাহমিনার ভাবি রুবিনা বেগমকে (২২) সহ পাঁচজনকে আটক করেছে পুলিশ।

জানা যায়, তাহমিনা আশিঘর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের দ্বিতীয় শ্রেণীর ছাত্রী। গতকাল(৮ ফেব্রুয়ারি) সোমবার স্কুল ছুটির পর সে আর বাড়ি ফিরেনি। অনেক খোঁজাখুঁজিও করেও তার কোনো সন্ধান না পাওয়ায় সন্ধ্যায় এলাকায় মাইকিং করা হয়। মাইকিংয়ের পর তাহমিনার এক সহপাঠির কাছ থেকে জানা যায়, সে (তাহমিনা) স্কুল ছুটির পর পানি পানের জন্য ভাবি রুবিনা বেগমের বাড়িতে গেছে।

তাহমিনার বড় ভাই রুহেল মিয়া স্ত্রী রুবিনা বেগমকে নিয়ে অন্য বাড়িতে বসবাস করেন।

পরে রুবিনার কাছে তাহমিনার ব্যাপারে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি অসংলগ্ন কথাবার্তা বলতে থাকেন। তার ভাবভঙ্গি সন্দেহজনক হওয়ায় পুলিশে খবর দেয়া হয়। মঙ্গলবার মধ্যরাতে ফেঞ্চুগঞ্জ থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে রুবিনা বেগমকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। একপর্যায়ে তার বাড়ির টয়লেটের স্ল্যাপ ভাঙা দেখতে পেয়ে ট্যাংকির ভেতর তল্লাশি চালিয়ে বস্তাবন্দী অবস্থায় তাহমিনার লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।

এসময় তাহমিনার ভাবি রুবিনাকে আটক করে পুলিশ। লাশ উদ্ধার করে মঙ্গলবার সকালে থানায় ফিরে পুলিশ।

এ ব্যাপারে ফেঞ্চুগঞ্জ থানার ওসি  মীর মো. আবদুল নাসির বলেন, কি কারণে এ হত্যাকান্ড ঘটেছে, তা তদন্তের পর বলা যাবে।

তাহমিনাকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করা হয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে, বলে জানিয়েছেন ফেঞ্চুগঞ্জ থানার ওসি নন্দন কান্তি ধর।