শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

সাইদ অপহরণ ও হত্যা মামলায় পুলিশ কনস্টেবল এবাদুর রহমান পুতুল সহ তিনজনের ফাঁসির আদেশ



geda

সিলেটে ৪র্থ শ্রেণীর ছাত্র আবু সাইদ অপহরণ ও হত্যা মামলায় পুলিশ কনস্টেবল এবাদুর রহমান পুতুল সহ তিনজনকে ফাঁসি দিয়েছেন আদালত। এছাড়া একজনকে বেকসুর খালাস দেয়া হয়েছে।

বিকেল সাড়ে তিনটায় সিলেট নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল আদালতের বিচারক আব্দুর রশিদ রায় পড়া শুরু করেন। এসময় আদালত কক্ষে আইনজীবি, গণমাধ্যম কর্মী ও পুলিশ সদস্য, বাদী ও আসামী পক্ষের লোকজন উপস্থিত ছিলেন।

রায়ে আদালত অপহরণ ও হত্যার ঘটনা সন্দেহাতীত প্রমাণিত হওয়ায় সিলেট বিমান বন্দর থানার পুলিশ সদস্য এবাদুর রহমান পুতুল, র‌্যাবের কথিত সোর্স আতাউর রহমান গেদা ও ওলামালীগের সিলেট জেলা সাধারন সম্পাদক নুরুল উসলাম রাকিবকে ফাঁসির আদেশ দেন। একই সাথে তাদের প্রত্যেককে একলক্ষ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো এক বছর করে কারাদন্ডে দন্ডিত করেন।অপর আসামী মাহিব হোসেন মাছুমের বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ প্রমানিত না হ্ওয়ায় তাকে বেকসুর খালাস প্রদান করেন।

নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনালের বিশেষ পিপি এডভোকেট আব্দুল মালেক আদালতের রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, এ রায় প্রত্যাশিত ছিল।

তবে আসামীপক্ষের আইনজীবি এডভোকেট শাহ আশরাফ উচ্চ আদালতে আপীল করবেন বলে জানিয়েছেন।

আর রায় দ্রুত কার্যকরের দাবী জানিয়েছেন নিহত আবু সাইদের আবদুল মতিন।

চলতি বছরের ১১ মার্চ বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সিলেট নগরীর রায়নগর থেকে স্কুলছাত্র আবু সাঈদকে অপহরণ করা হয়। এরপর ১৩ মার্চ রাত সাড়ে ১০টায় বিমানবন্দর থানার পুলিশ কনস্টেবল এবাদুর রহমান পুতুলের কুমারপাড়ার ঝরনারপাড় সবুজ-৩৭ নম্বর বাসার ছাদের চিলেকোঠা থেকে সাঈদের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করে পুলিশ।