শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারী ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

সিলেটবাসীর প্রতিক্ষার অবসান ঘটিয়ে কাল মাঠে গড়াবে বল



SYLHET ZILA STADIUM-2স্টাফ রিপোর্টার:

গত টিটোয়েন্টি ক্রিকেট বিশ্বকাপের বেশ কয়েকটি খেলা সিলেটে অনুষ্ঠিত হওয়ার পর ফুটবল ভক্তরা এক রকম মুখিয়েই ছিলেন কবে সিলেটে হবে ফুটবলের আর্ন্তজাতিক ম্যাচ তা দেখতে। সেই প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে সিলেটের মাটিতে প্রথমবারের মতো অনুষ্ঠিত হচ্ছে নেপাল ও বাংলাদেশের মধ্যে ফুটবল ম্যাচ।
আর সেই প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে আগামীকাল শুক্রবার সিলেটে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আর্ন্তজাতিক ফুটবল ম্যাচ ।

২৫ হাজার ধারণ ক্ষমতাসম্পন্ন সিলেট জেলা স্টেডিয়ামের এই ম্যাচের টিকেট বিক্রিও শেষের দিকে। এ নিয়ে সিলেটের ফুটবল প্রেমীদের মধ্যে দেখা দিয়েছে ব্যাপক আগ্রহ।

জেলা ফুটবলের কর্মকর্তারা বলছেন, একটি আর্ন্তজাতিক ম্যাচ অনুষ্ঠানের যাবতীয় প্রস্তুতী সম্পন্ন করেছেন তারা। এখন আবহাওয়া অনুকুলে থাকলে সুন্দর একটি খেলা উপভোগ করতে পারবেন সিলেটবাসী।
SYLHET ZILA STADIUM-5
এদিকে আজ বৃহস্পতিবার সকালে নেপাল ফুটবল দল সিলেট আর্ন্তজাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে অনুশীলন করেছে। সকাল ৯ টা থেকে সাড়ে ১১ টা পর্যন্ত তারা অনুশীলন করে। বিকেলে একই স্থানে অনুশীলনে অংশ নেয় বাংলাদেশ দল।

অনুশীলনের আগে বাংলাদেশ দলের অধিনায়ক সিলেটের সন্তান ওয়াজেদ সাংবাদিকদের সাথে আলাপ কালে বলেন, এক সাথে সিলেটের তিন জন খেলোয়ার বাংলাদেশ টিমের হয়ে সিলেটের মাটিতে খেলবো এটা খুবই আনন্দের ব্যাপার। সিলেটের ২৫-৩০ হাজার দর্শকের সমর্থন নিয়ে আমরা খেলবো। ইনশাআল্লাহ আমরা খেলায় জয় লাভ করবো।’

 

টিম ম্যনেজার বাবু বলেন, দর্শকদের চাহিদা মেটাতে আমাদের প্লেয়াররা চেষ্ঠা করে যাচ্ছে। আশা করি ম্যাচে আমরা জয় পাব।
টিকেট বিক্রির সাথে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন, বুধবার সন্ধ্যা পর্যন্ত সময়ের মধ্যে তারা প্রায় ৭০ ভাগ টিকেট বিক্রি করে ফেলেছেন। সিলেটের প্রতিটি উপজেলায় সিএনজিতে করে টিকেট বিক্রি হচ্ছে।
SYLHET ZILA STADIUM-1
এসএমপি’র এডিসি (মিডিয়া) মো: রহমত উল্লাহ নিরাপত্তা প্রসঙ্গে বলেন, গেল বিশ্বকাপের নিরাপত্তা ব্যবস্থার অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে শুক্রবারের ম্যাচটিও যাতে শান্তিপূর্ণভাবে করা যায় সেজন্যে সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের পক্ষ থেকে নেয়া হয়েছে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

জেলা ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতি মাহি উদ্দিন সেলিম বললেন, সুন্দর একটি ম্যাচ উপহার দিতে সকল প্রস্তুতী সম্পন্ন করা হয়েছে। তবে মাঠে পানি নিষ্কাশনের ব্যবস্থা ভেঙ্গে যাওয়ায় বৃষ্টি হলে খেলোয়ারদের কিছুটা সমস্যা হতে পারে বলেও জানান তিনি। Photo0212