রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

টাংগুয়ার হাওর ও নীলাদ্রি লেকে রাত্রিযাপন নিষিদ্ধ



স্টাফ রিপোর্টারঃ  সুনামগঞ্জের টাঙ্গুয়ার হাওর ও নিলাদ্রী লেক (শহীদ সিরাজ লেক) রাত্রী যাপন নিষিদ্ধ ঘোষণা করেছে উপজেলা প্রশাসন। গত বৃহস্পতিবার তিতুমীর কলেজের শিক্ষার্থী জাহিদ চৌধুরী টাঙ্গুয়ার হাওরে ঘুরতে এসে পানিতে ডুবে নিহত হওয়ার ঘটনায় উপজেলা প্রশাসন এই সিদ্বান্ত নিয়েছে। তাহিরপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা পদ্মাসন সিংহ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। টাঙ্গুয়ার হাওরে পর্যটকেরা ভ্রমণে আসলে সারা দিন ঘুরে হয় টাঙ্গুয়ার হাওর না হয় নিলাদ্রী লেকে নৌকায় রাত্রী যাপন করতে। এখন থেকে সকালে এসে সন্ধ্যার মধ্যে হাওর এলাকা থেকে দর্শনার্থীরা ফিরে যেতে হবে।

আনন্দেউচ্ছাসিত পর্যটক

উপজেলা প্রশাসন জানায়, করোনা পরিস্তিতি শুরুর পর ১৯ মার্চ সুনামগঞ্জের টাঙ্গুয়ার হাওরসহ জেলার সব দর্শনীয় স্থানে পর্যটকদের ভ্রমণে জেলা প্রশাসন নিষেদ্ধা জারি করে। এর পর থেকে পর্যটেকরা সুনামগঞ্জে ভ্রমণে আসেননি। কিন্তু কোরবানীর ঈদের নিষেদ্ধা জারির প্রায় ৪মাস পর জেলার আইন শৃঙ্খলা কমিটির মিটিং এর সুনামগঞ্জের টাঙ্গুয়ার হাওরসহ সবকটি দর্শনীয় স্থান খুলে দেয়ার সিদ্বান্ত নেয়া হয়। এরই প্রেক্ষিতে সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে নিষেদ্ধা শীতিল করে সীমিত আকারে স্বাস্থ্যবিধি মেনে জেলার তাহিরপুরের টাঙ্গুয়ার হাওর, যাদুকাটা, বারিক্কার টিলা, সুনামগঞ্জ সদর ও দোয়ারাবাজাসহ জেলার দর্শনীয় স্থান গুলো পর্যটকদের জন্য স্বাস্থ্যবিধি মেনে সীমিত আকারে শর্ত মেনে খুলে দেয়া সিদ্বান্ত নেয়া হয়। কিন্তু গত বৃহস্পতিবার গত বৃহস্পতিবার তিতুমীর কলেজের শিক্ষার্থী জাহিদ চৌধুরী টাঙ্গুয়ার হাওরে ঘুরতে এসে পানিতে ডুবে নিখোঁজ হলে তাহিরপুর পুলিশ প্রশাসন মাছ ধরার জাল ফেলে জাদিহের লাশ উদ্বার করে। এই ঘটনার পর উপজেলা প্রশাসন টাঙ্গুয়ার হাওর ও নিলাদ্রী (শহীদ সিরাজ লেক) কে রাত্রী যাপন নিষিদ্ধ করেন।

তাহিরপুর উপজেলার নির্বাহী কর্মকর্তা পদ্মাসন সিংহ বলেন, গত বৃহস্পতিবার তিতুমীর কলেজের এক শিক্ষার্থীর পানিতে ডুবে মর্মান্তিক মৃত্যুর পর উপজেলা প্রশাসন এই সিদ্বান্ত নিয়েছে। তবে কত দিন এই ঘোষণা বলবৎ থাকবে তা পরে জানানো হবে। তবে এখন থেকে আর কেউ টাঙ্গুয়ার হাওর ও শহীদ সিরাজ লেক (নিলাদ্রীতে রাত্রী যাপন করতে পারবেন না। ভ্রমণে আসলেও সন্ধ্যার মধ্যে সবাইকে ফিরে যেতে হবে।