রবিবার, ২৫ অক্টোবর ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ১০ কার্তিক ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে বখাটে কর্তৃক মেয়েকে না পেয়ে তার বাবাকে পেটানোর ঘটনায় ৫জনকে জেল হাজতে পাঠিয়েছেন আদালত



স্টাফ রিপোর্টারঃ  সুনামগঞ্জের জগন্নাথপুরে স্বামী পরিত্যক্তা স্ত্রীকে নির্যাতন, ধর্ষণের ঘটনা এবং পরে মেয়েকে না পেয়ে তার বৃদ্ধ বাবাকে রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করার ঘটনায় নির্যাতিতা মেয়ে বাদী হয়ে তাকে ধর্ষণ,অপহরণ ও বাবাকে মারধরের অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করেছেন। এই ঘটনায় বুধবার বিকেলে ৫ আসামীকে আদালতে হাজির করলে সুনামগঞ্জ জুড়িশিয়াল ম্যাজিসেট্রট আদালত তাদের জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন। সুনামগঞ্জ জুডিশিয়াল ম্যাজিসেট্রট শুভদীপ পাল এই আদেশ দেন।

এর আগে মঙ্গলবার রাতে জগন্নাথপুর থানায় নির্যাতিত ঐ নারী ৫ জনকে আসামী করে মামলা করেন। এ ঘটনায় আটককৃত লিটন মিয়া, আকাই মিয়া, ইলিয়াছ মিয়া ও আলম মিয়াসহ ৫ জনকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে। তবে এই ঘটনার প্রধান আসামি শামিম পলাতক রয়েছে। এদিকে আসামীদের আজ বিকেলে আদালতে আনা হবে।
জগন্নাথপুর থানার ওসি (তদন্ত) মুসলেহ উদ্দিন আহমেদ জানান,উদ্ধার হওয়া ঐ নারী তাকে ধর্ষণ, অপহরণ ও তার বাবাকে নির্যাতনের ঘটনায় ৫ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেছেন। আটক ৫ জনকে মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে আদালতে পাঠানো হচ্ছে। তবে প্রধান আসামী শামীমকে ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

এদিকে নির্যাতিতার বাড়ি ও ঘটনাস্থল পরিদর্শনে গেছেন পুলিশ সুপার।
এসময় পুলিশ সুপার মিজানুর রহমান জানান ঘটনার সাথে জড়িত কাউকেই ছাড় দেয়া হবেনা। এ ঘটনায় জড়িত সকল আসামীকেই আইনের আওতায় আনা হবে।

উল্লেখ্য গত সোমবার রাতে স্বামী পরিত্যক্তা মেয়েকে না পেয়ে তার বাবাকে উপজেলার পাইলগাঁও ইউনিয়নের আলীগঞ্জ বাজারের কলোনির ভাড়া বাসা থেকে ধরে নিয়ে গিয়ে রড দিয়ে পিটিয়ে আহত করে পার্শ্ববর্তী গুতগাঁও গ্রামের শামীম আহমদ ও তার লোকজন। আর মঙ্গলবার সকালে নিখোঁজের ৬দিন পর হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ থেকে নিখোঁজ মেয়েকে উদ্ধার করেছে পুলিশ।
পরে এই ঘটনাটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়লে পুলিশ খবর পেয়ে সোমবার ভোর রাতেই অভিযান চালিয়ে আলীগঞ্জ বাজারের পাশ্ববর্তী গুতগাঁও গ্রাম থেকে ৪ জনকে আটক করে পুলিশ।