শনিবার, ৬ জুন ২০২০ খ্রীষ্টাব্দ | ২৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

জেলা পরিষদ নির্বাচন: সুনামগঞ্জে মতিউর-ইমন-মুকুট প্রার্থী হতে আগ্রহী



Untitled-1সুনামগঞ্জ জেলা পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগের দলীয় মনোনয়ন পেলে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান, সাধারণ সম্পাদক বর্তমান জেলা পরিষদ প্রশাসক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবীর ইমন এবং সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল হুদা মুকুট নির্বাচন করবেন বলে জানিয়েছেন। জেলা পরিষদ নির্বাচন ডিসেম্বরে হবে এমন সংবাদ সোমবার গণমাধ্যমে প্রচার হওয়ায় সুনামগঞ্জের বিভিন্ন মহলে এই নিয়ে আলোচনা শুরু হয়। কেউ কেউ বলেছেন, ‘জেলা পরিষদে যেহেতু ভোটার থাকবেন স্থানীয় সরকার নির্বাচনে নির্বাচিত প্রতিনিধিরা, সেহেতু ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মনোনয়ন প্রক্রিয়ায় ভূমিকা পালনকারী জেলা নেতৃত্ব প্রভাব খাটানোর সুযোগ পাবেন। অবশ্য. জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক দুজনেই বলেছেন,‘এমন সুযোগ একেবারেই কম’।

জেলার দোয়ারাবাজার উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ইদ্রিস আলী বীরপ্রতীক বলেন,‘জনগণের ভোটে জেলা পরিষদ প্রশাসক হলে ভাল হতো, স্থানীয় সরকারের নির্বাচিত প্রতিনিধিদের ভোটে নির্বাচন হলে প্রভাবিত করার সুযোগ থেকেই যায়। এবার স্থানীয় সরকার অর্থাৎ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন হচ্ছে দলীয় প্রতীকে, দলীয় মনোনয়ন প্রক্রিয়ায় যাদের  কর্তৃত্ব আছে তাঁরা প্রার্থী হবার আকাঙ্খা থাকলে অবশ্যই প্রভাব কাটানোর সুযোগ পাবেন’।

প্রসঙ্গত. সোমবার জাতীয় একটি দৈনিকে ছাপা হয়েছে সরকার পরিকল্পনা করছে ইউনিয়ন, উপজেলা, পৌরসভা ও সিটি করপোরেশনের নির্বাচিত প্রতিনিধিদের নির্বাচক মণ্ডলিতে রেখে পূর্ণাঙ্গ জেলা পরিষদ গঠন করার। স্থানীয় সরকার বিভাগ এ লক্ষ্যে জেলা পরিষদ আইন-২০০০ পর্যালোচনার কাজ শুরু করেছে। জেলা পরিষদ নির্বাচনে একজন চেয়ারম্যানের পাশাপাশি ১৫ জন সদস্য এবং সংরক্ষিত ৫ জন নারী সদস্যও নির্বাচন করা হবে।

জাতীয় একটি পত্রিকায় এই সংবাদ ছাপা হবার পর সুনামগঞ্জের আওয়ামী লীগের ৩ নেতা দলীয় মনোনয়ন পেলে জেলা পরিষদ নির্বাচন করার বিষয়ে ইতিবাচক মন্তব্য করেছেন।
জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক নুরুল হুদা মুকুট বলেন,‘দলীয় মনোনয়ন চাইবো, দল মনোনয়ন দিলে নির্বাচন করবো। ইউপি নির্বাচনে নিজের বলয়ের প্রার্থী দিলেও দলীয় মনোনয়নে তাদের ভূমিকা রাখার সুযোগ কম, দলের মনোনয়ন বোর্ড দলীয় প্রার্থী যাকেই করবে, সকল দলীয় নির্বাচিত প্রতিনিধিরা তাকেই ভোট দেবে’।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, জেলা পরিষদ প্রশাসক ব্যারিস্টার এম এনামুল কবির ইমন বলেন,‘দল মনোনয়ন দিলে নির্বাচন করবো’। স্থানীয় সরকারের চলমান নির্বাচনে নিজের পছন্দের প্রার্থী করার সুযোগ কম মন্তব্য করে ব্যারিস্টার ইমন বলেন,‘পছন্দের প্রার্থী করার সুযোগ কোথায়, ইউনিয়ন কমিটির বর্ধিত সভা, উপজেলা কমিটির দেওয়া তালিকা, সরকারি নানা সংস্থার রিপোর্ট, সব কিছু বিবেচনা করে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী করা হচ্ছে’।
জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মতিউর রহমান বলেন, ‘আমি সংসদ সদস্য ছিলাম, আমার আকাঙ্খার জায়গা সংসদ, এরপরও দল দায়িত্ব দিলে জেলা পরিষদ নির্বাচন করবো’। তিনি বলেন,‘ ইউপি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন দেবার ক্ষেত্রে প্রভাব কাটানোর চেষ্টা করছি না, দলের প্রতি নিবেদিত, যোগ্য প্রার্থীকে তৃণমূলের মতামতের ভিত্তিতে প্রার্থী করার সুপারিশ করছি’।