শুক্রবার, ২২ জানুয়ারী ২০২১ খ্রীষ্টাব্দ | ৯ মাঘ ১৪২৭ বঙ্গাব্দ
শিরোনাম

এ মাসেই বিচার বিভাগের বেতন বৃদ্ধির বিষয়টি সুরাহা-অর্থমন্ত্রী (ভিডিওসহ)




51518

বিচার বিভাগের বেতন ভাতার বিষয়টি এখনো ফয়সালা হয়নি। তারা পুরোনো নিয়মে বেতন ভাতা পাচ্ছে। তবে এ মাসেই বিচার বিভাগের বেতন ভাতা বৃদ্ধির বিষয়টি সুরাহা হবে; ফলে তারা নতুন নিয়মে বেতন ভাতা পাবেন বলে জানিয়েছে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত। আজ বিকেলে সিলেটে ইসলামিক ফাউন্ডেশনের ‘সন্ত্রাস ও জংগিবাদ প্রতিরাধ ও প্রাক-খুতবা পর্যালোচনা বিষয়ক খতিব সম্মেলনে’ এসব মন্তব্য করেন তিনি।

এসময় মন্ত্রী আরো বলেন, ইমাম-খতিবরা ইসলামের শান্তির বানী প্রচারে গুরুত্বপূর্ন ভুমিকা রাখছেন।  সন্ত্রাস-জংগিবাদ বিস্তার রোধে তাদের আরোও কার্যকর ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান তিনি। শেখ হাসিনার সরকার সমাজে জংগিবাদ নির্মূলে সক্ষম হয়েছে বলেও মন্তব্য করেন তিনি। এছাড়া শীঘ্রই ইমাম-খতিবদের বেতন-ভাতা বৃদ্ধির ব্যাপারে সরকার পদক্ষেপ নেবেন বলেও জানান তিনি।

সিলেটের জেলা প্রশাসক মো. জয়নাল আবেদীনের সভাপতিত্বে সম্মেলনে আরো বক্তব্য রাখেন ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজল, বোর্ড অফ গভর্ণন্সের গভর্ণর অধ্যক্ষ মাওলানা মুহাম্মদ জালালুদ্দীন আল কাদেরীসহ অন্যন্যরা। সম্মেলনে সিলেট বিভাগের চার জেলা ছাড়াও ব্রাম্মনবাড়িয়া, নরসিংদী ও কিশোরগঞ্জ জেলার ইমাম ও খতিবরা অংশগ্রহন করেন।

এদিকে, বাংলাদেশ ঐক্য ন্যাপ আয়োজিত মজলুম জননেতা পীর হবিবুর রহমানের ১২ তম মৃত্যুবার্ষিকী স্মরণ সভায় প্রধান অতিথির  বক্তব্যে অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত বলেন “দলীয় রাজনীতিতে পীর হবিবুর রহমান যুক্ত থাকলেও তার রাজনীতি ছিল সম্পূর্ণ নিজস্ব ও স্বাতন্ত্র্য।  কীভাবে মানুষের সেবা করা যায় এটাই ছিল পীর হবিবুর রহমানের জীবনের লক্ষ্য।”

দক্ষিণ সুরমার জালালপুর ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গণে উপজেলা প্রাঙ্গনে এ স্মরণসভায় তিনি আরো বলেন, “উনি যা সঠিক মনে করতেন সেটাই করতেন, তবুও ভিন্ন মতের প্রতি ছিল তার শ্রদ্ধা।”

স্মৃতিচারণ করে মুহিত বলেন, “তিনি আমার বাবার অনুসারী হওয়ার সুবাদে তাঁকে আমি ৯ বছর বয়স থেকেই চিনতাম। ভাসানী সাহেবের পর তিনিই মনে হয় একমাত্র সংসদ সদস্য যিনি লুঙ্গী পরে সংসদে যেতেন। এতে তিনি বিব্রত বোধ করতেন না। এটাকে তিনি খুবই স্বাভাবিক বিষয় মনে করতেন মানুষ যেভাবে সাধারণত থাকে সেভাবেই তিনি থাকার চেষ্টা করতেন।”

বাংলাদেশ ঐক্য ন্যাপ সিলেট জেলা শাখার সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা সুবল চন্দ্র পালের সভাপতিত্বে দেবব্রত রায় দীপনের ও হাসান বক্ত চৌধুরী কাওসারের যৌথ পরিচালনায় আয়োজিত স্মরনসভায় বক্তব্য রাখেন ঐক্য ন্যাপের কেন্দ্রীয় সভাপতি পংকজ ভট্টাচার্য, জাতিসংঘে নিযুক্ত বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রদূত ড. একে আবদুল মোমেন, সাবেক সংসদ সৈয়দা জেবুন্নেসা হক, যুবলীগের প্রেসিডেন্টের সদস্য ড.আহমদ আল কবির, ঐক্য ন্যাপের প্রেসিডিয়াম সদস্য আবদুল মোনায়েম নেহেরু, দক্ষিণ সুরমা উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ আবু জাহিদ, বাংলাদেশ কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি নুর মোহাম্মদ তালুকদার, পীর হবিবুর রহমানের তনয় মনজুর ইসলাম, ঐক্য ন্যাপের সিলেট জেলার সহ সভাপতি ইয়াওর বক্তব্য চৌধুরী, সিপিবি সিলেট জেলার সাধারণ সম্পাদক এড. আনোয়ার হোসেন সুমন, প্রগতিশীল রাজনৈতিক কর্মী রনেন সরকার রনি প্রমুখ।